অপরাধনরসিংদীর খবররায়পুরা

রায়পুরায় সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুত্বর জখম হাজী নান্নু মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ব্যবসায়ী হাজী নান্নু মিয়া

বাণী রিপোর্ট : দাবীকৃত ৫০ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়া ও জায়গা লিখে না দেয়ায় হত্যার উদ্দেশ্যে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম করেছে ব্যবসায়ী হাজী নান্নু মিয়াকে। আহতাবস্থায় নান্নু মিয়াকে নরসিংদী সদর হাসপতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

পারফিউম ফ্যাক্টরি

আজ রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারী) সকালে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মেথিকান্দা এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, হাজী নান্নু ফজরের নামাজ শেষে হাটাহাটির জন্য শঙ্কর মেম্বারের বাড়ীর মোড়ে যাওয়ার পথে পূর্ব থেকে উৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী ও চাদাঁবাজরা হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা চালায়। রায়পুরা মেথিকান্দা এলাকার প্রভাবশালী লাঠিয়াল হযরত আলীর ছেলে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী আবিদ হাসান রুবেল ও তার সহযোগী জুয়েল, বিল্লাল, রাসেল, রহমত, ফারুক, সহ ১০/১২জন প্রকাশ্যে এ হামলা চালিয়েছে।

রায়পুরা এলাকার ত্রাস সন্ত্রাসী রুবেল ও তার সহযোগী জুয়েল,রহমত

জানা যায়, রায়পুরা বাজার এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নান্নু হাজী মেথিকান্দা এলাকায় জায়গা কিনে সেখানে বসত বাড়ী নির্মাণ করে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসবাস করছে। নান্নু হাজীর বিত্ত বৈভবের উপর চোখ পড়ে রায়পুরা এলাকার ত্রাস আবিদ হাসান রুবেলের। কয়েক মাস পূর্বে সে নান্নু হাজীর নিকট ৫০লাখ টাকা চাদাঁ ও জায়গা লিখে দেয়ার দাবী করে। দাবাীকৃত টাকা ও জায়গা না দিলে তাকে এবং তার পরিবারের সদস্যদের প্রাণে মেরে ফেলার সহযোগীদের নিয়ে অস্ত্র উচিয়ে প্রকাশ্যে হুমকী দেয়। প্রকাশ্যে সহযোগীদের নিয়ে অস্ত্রসহ রুবেল নান্নু হাজীর বাড়ীর পাশে অনবরত মহড়া দিতে থাকলে প্রাণ ভয়ে হাজী নান্নু বাড়ী ছেড়ে নরসিংদী শহরে এসে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনায় হুমকীর প্রেক্ষিতে হাজী নান্নু মিয়া রায়পুরা থানা, নরসিংদী পুলিশ সুপার কার্যালয়, জেলা প্রশাসক, নরসিংদী প্রেসক্লাব ও পুলিশের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেন।
পরে শান্তির স্বার্থে নরসিংদী প্রেসক্লাবে নান্নু হাজী এবং রুবেল ও তার সহযোগীদের উপস্থিতিতে তৎকালীণ নরসিংদী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল পারভেজ মন্টি আপোষ মিমাংশা করে দেয়। রুবেল ও তার সহযোগীরা নান্নু হাজীকে আর কোনদিন হুমকী দিবেনা বলে অঙ্গীকার পত্রে স্বাক্ষর করেন। আপোষ মিমাংশার পর নান্নু হাজী তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মেথিকান্দার বাড়ীতে বসবাস করতে থাকে।এদিকে ৫/৬ মাস চুপ থাকার পর গত জ্জ দিন যাবত রুবেল ও তার সহযোগীরা আবারো নান্নু হাজীকে ৫০ লাখ টাকা চাদাঁ ও জায়গা লিখে দিতে প্রকাশ্যে অস্ত্র উচিয়ে হুমকী দিতে থাকে। নান্নু হাজী হুমকীর বিষয়ে এলাকার লোকজকে অবহিত করে।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

প্রতিদিনের ন্যায় আজ রবিবার ভোরে ফজরের নামাজ শেষে হাটাহাটির জন্য নান্নু হাজী বের হয়। স্থানীয় শংকর মেম্বারের বাড়ীর মোড়ে যাওয়ার পথে একা পেয়ে পূর্ব থেকে উৎ পেতে থাকা রুবেল ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে নান্নু হাজীর উপর হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। সন্ত্রাাসীরা নান্নু হাজীর মাথা, হাত পা সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। হামলা চলাকালে স্থানীয় লোকজন এ পথ ধরে আসতে থাকলে সন্ত্রাসীরা গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম অবস্থায় তাকে রাস্তায় ফেলে চলে যায়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন নান্নু হাজীকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করে।

Back to top button