নরসিংদীর খবররায়পুরা

রায়পুরা শ্রীরামপুর বাজারে দুর্ধর্ষ চুরি, মালামালসহ ২জন গ্রেফতার

The Daily Narsingdir Baniমাহবুবুল আলম লিটন : নরসিংদীর  রায়পুরা উপজেলা শহরেরর শ্রীরামপুর বাজারের একটি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। রায়পুরা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে চুরি যাওয়া আংশিক মালামালসহ ২ জনকে আটক করতে সক্ষম হয়। চুরির কাজে ব্যবহৃত একটি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার করা হয়েছে।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

বুধবার (১১আগষ্ট) বিকেল রায়পুরা থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) দেব দুলাল দে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনিরুল ইসলাম মনির।

The Daily Narsingdir Bani

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জ উপজেলার রূপসী এলাকার মো. সরুজ মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম (২৮), ভোলা জেলা সদরের মো. রাসেল মিয়ার ছেলে মো. সাগর মিয়া (২৩)। সাগর নারাণগঞ্জের কাঁচপুরে একটি ভাড়াবাসায় বসবাস করতো।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

এসআই দেব দুলাল দে বলেন, গত ৩০ জুলাই রাতে শ্রীরামপুর বাজারের লোকনাথ স্টোরে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়। তালা কেটে দোকানে চুরির ঘটনায় ৩১ জুলাই/২১ ব্যবসায়ী উত্তম পাল থানায় একটি অভিযোগ দেন। অভিযোগে ৫০ কার্টুন বেনসন, দুই কার্টুন রয়েল, আট কার্টুন পাইলট, এক কার্টুন করে ক্যাপেস্টন, গোল্ডলিফ, স্টার, হলিউড সিগারেটসহ ক্যাশ বাক্সে থাকা সাত হাজার টাকা চুরি হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। চুরিকৃত সিগারেটের মূল্য আট লাখ ৩৪ হাজার টাকা।

সহকারী পুলিশ সুপার, রায়পুরা সার্কেল, সত্যজিৎ কুমার ঘোষ সুযোগ্য নেতৃত্বে এবং অফিসার ইনচার্জ, রায়পুরা থানা মোঃ গোলাম মোস্তফা পিপিএম এর দিক নির্দেশনায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মনিরুল ইসলাম কঠোর পরিশ্রম ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ জেলার কাচপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে চুরির সাথে জড়িত ২ জন আসামী এবং চুরির কাজে ব্যবহৃত একটি পিকআপ আটক করেন।

তাদের দেওয়া তথ্যে মতে সাগরের ভাড়াবাসা থেকে এক কার্টুন পাইলট ও দশ কার্টুন বেনসন সিগারেট উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আরো দুজন জড়িত থাকার তথ্য দিয়েছেন গ্রেপ্তরকৃতরা।

এসআই মনিরুল ইসলাম বলেন, জব্দকৃত পিকআপভ্যানটি তিনমাস আগে কিনেন সাগর। তদন্তে গাড়িটির সাবেক মালিক এ তথ্য জানান। পরে তার সহযোগিতায় কাঁচপুর থেকে গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। বাকি চোরাই মালামালসহ জড়িত অপর দুজনকে ধরতে অভিযান চলছে।

Back to top button