নরসিংদীর খবর

প্রাথমিক শিক্ষায় দেশসেরা অনলাইন পারফর্মার নরসিংদীর শিক্ষিকা মল্লিকা সাহা

The Daily Narsingdir Bani

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্ট : করোনাকালীন সময়ে বসে নেই প্রাথমিক শিক্ষকরা। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে দেশের লক্ষ লক্ষ প্রাথমিক শিক্ষক অনলাইনে যুক্ত থেকেছেন। পাঠ্য বিষয়সহ বৈশ্বিক মহামারি মোকাবেলায় শিক্ষার্থীদের করনীয় এবং তাদের মানসিক স্বাস্থ্য সুস্থ্য রাখতে চেষ্টা চালাচ্ছেন।

The Daily Narsingdir Bani

এবার প্রাথমিক শিক্ষায় দেশসেরা অনলাইন পারফর্মার নির্বাচিত হলেন নরসিংদী সদর উপজেলার চৈতাব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মল্লিকা সাহা। এ পর্যন্ত দুই শতাধিক ক্লাস নিয়ে পাঁচ লাখ ৮৪ হাজার ৯৩ জন শিক্ষকের মধ্যে তিনি সেরা অনলাইন পারফর্মার মনোনীত হয়েছেন। এর আগে ২০২০ সালের আইসিটি ফর ই জেলা অ্যাম্বাসেডর নির্বাচিত হয়েছিলেন মল্লিকা সাহা।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, ২০২০ সালের ১৭ মার্চ করোনা মহামারির কারণে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্ধের ঘোষণা আসে। ২৬ মার্চ থেকে দেশজুড়ে শুরু হয় লকডাউন। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা ঘরবন্দি থাকার পাশাপাশি পড়ালেখা থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তাদের মানসিক স্বাস্থ্যেরও অবনতি ঘটে। এসব কিছু বিবেচনায় নিয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় যুক্ত রাখতে এবং তাদের মানসিকভাবে ভালো রাখতে দেশের অন্য শিক্ষকদের মতো নিরবচ্ছিন্ন অনলাইনে লাইভ ক্লাস নিচ্ছেন এই শিক্ষক। এ পর্যন্ত তিনি দুই শতাধিক ক্লাস নিয়েছেন এবং তার পাঠদান এখনো চলমান।

নরসিংদী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নাসরিন আক্তার বলেন, মল্লিকা সাহা মহামারির পুরো সময়টা ধরে স্বপ্রণোদিত হয়ে লাইভ ক্লাস নিয়েছেন। এতে সারাদেশের শিক্ষার্থীরা উপকৃত হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষায় এ অবদান রাখার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই এবং তার সাফল্য কামনা করি।

নিজের অনুভূতি প্রসঙ্গে মল্লিকা সাহা বলেন, একজন করোনাযোদ্ধা হিসেবে যুদ্ধে অংশ নিয়েছি। আমার সন্তানতুল্য প্রিয় শিক্ষার্থীদের জন্য কিছু করতে হবে এ ভাবনা থেকে ক্লাস নেয়া শুরু করি। আমার সেরা হওয়ার মূলে হলো আমার শিক্ষার্থীরা। এ অর্জন আমি পুরো দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের জন্য উৎসর্গ করেছি।

Back to top button