নরসিংদীর খবরশিবপুর

শিবপুরে এক দিনেই খারিজ খতিয়ান পেলেন ভাগ্যবান জমির মালিক

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট : নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় একদিনেই জমির খারিজ খতিয়ান ভোক্তাকে দিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও বর্তমান আর ডিসি শ্যামল বসাক। খারিজ খতিয়ান প্রাপ্ত ভাগ্যবান জমির মালিক গোবিন্দপুর গ্রামের আজিজুর রহমান ও জাহিদুর রহমান।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

জানা যায় শিবপুর উপজেলার বাঘাব ইউনিয়নের জয়মঙ্গল মৌজার অন্তর্গত গোবিন্দপুর গ্রামের আজিজুর রহমান ও জাহিদুর রহমান তাদের সহ শরিকদের না জানিয়ে গত ২৮মার্চ/২১ তারিখে খারিজ পেতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন জমা দেন। আর এস ৩০৩৩,৩০৩০ ও ৩১৯৬ দাগের মোট ৮৩ শতাংশ বাগান ভূমির খারিজ খতিয়ান পাওয়ার জন্য আবেদন করা হয়।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

সহ শরীকগণের আপত্তি সত্বেও তা আমলে না নিয়ে তাদের কোন প্রকার নোটিশ না করে ২৯মার্চ/২১ তারিখে সহকারী কমিশনার (ভূমি) শ্যামল বসাক, সার্ভেয়ার মো: মোস্তাফিজুর রহমান, ক্রেডিট চেকিং কাম সায়রাত সহকারী তাহমিনা সুলতানা সাক্ষরিত খারিজ খতিয়ানটি আবেদনকারীদের সরবরাহ করা হয়। যার খারিজ খতিয়ান নং-৭৮৬, নামজারি মামলা নং-৩৭৮৫, মৌজা জয়মঙ্গল, জে এল নং-৯৫।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ পর্যন্ত অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যাদেরকে জমি দিয়েছেন কেবল মাত্র সেই জমি একদিনে খারিজের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া অন্য কেউ খারিজের আবেদন করলে বিধি মোতাবেক শরীক বা অংশিদার ও আশেপাশের জমির মালিককে নোটিশ দিয়ে শুনানির মাধ্যমে মালিকানা ও দখল নিশ্চিত করা হয়। এসব কারণে সকল কাগজপত্র ঠিকঠাক থাকলে খারিজ খতিয়ান পেতে ২১ দিন থেকে প্রায় একমাস সময় লেগে যায়।

কিন্তু উক্ত দাগের ৮৩ শতাংশ জমি কি কারণে একদিনে খারিজ করে দিলেন, এ ব্যাপারে সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) শ্যামল বসাক এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,এখন আমি আরডিসি হিসেবে কর্মরত আছি।

এ ব্যাপারে শিবপুর ভুমি অফিসে কথা বললে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সার্ভেয়ার জানান, এটা স্যার নিজেই তদারকি করেছেন। এত দ্রুততম সময়ে নরসিংদী জেলায় খারিজ প্রদান করা হয়নি বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। শিবপুরের সাধারন মানুষের মাঝে বিষয়টি নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে অতি সম্প্রতি এই খারিজটি বাতিলের জন্য একটি মিস কেইস রুজু হয়েছে বলে জানা গেছে।

Back to top button