নরসিংদী সদর

নরসিংদীতে কিশোরী আত্মহত্যার ঘটনায় ব্যবসায়ী ফরিদ গ্রেফতার

The Daily Narsingdir Baniনিজস্ব সংবাদদাতা : নরসিংদীতে চাঞ্চল্যকর কিশোরী রাত্রি আত্মহত্যার ঘটনায় প্ররোচণার অভিযোগে আসামি ব্যবসায়ী ফরিদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  জেলা পুলিশের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত (১৯ জুন) নরসিংদীর শিবপুর থানার ভরতেরকান্দি এলাকার একটি টিনশেড বাড়িতে রাত্রি নামের একজন ১৬ বছরের কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

সংবাদ প্রাপ্তির পর শিবপুর মডেল থানা পুলিশ নিহতের মরদেহের সুরতহাল’র পর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। ময়নাতদন্ত শেষে রাত্রি’র মরদেহ স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এই সংক্রান্তে শিবপুর থানায় গত (১৯ জুন) একটি অপমৃত্যুর মামলা রুজু হয়।

The Daily Narsingdir Bani

ঘটনার পর দিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে নিহত রাত্রি’র কিছু ভয়েজ রেকর্ড ও তার ঝুলন্ত মরদেহের ছবি প্রকাশ হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আরো প্রকাশিত হয়ে যে, রাত্রি নরসিংদী সদর উপজেলার টাউন হল মোড়ে অবস্থিত Fair Price Shop নামের দোকানে চাকুরি করতেন।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে প্রাপ্ত তথ্যাদি জানার সাথে সাথেই পুলিশ সুপার, নরসিংদী ঘটনার সত্যতা অনুসন্ধানপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তাৎক্ষণিক নির্দেশ প্রদান করেন এবং বিষয়টির সার্বক্ষণিক মনিটরিংসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

ভিকটিম রাত্রি’র মা জীবিত নেই এবং বাবা দূরে থাকায় ভিকটিমের নানি নূরজাহান বেগম (৬০) ও মামা মাসুদ রানা (৩০) সহ নরসিংদী মডেল থানা পুলিশ এর একটি টিম ঐ দোকান পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনের সময় ঐ দোকানে স্থাপিত সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখা যায় যে, ঘটনার সম্ভাব্য সময়ের ভিডিও ফুটেজ নেই; যা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মুছে ফেলা হয়েছে এবং ভিকটিম রাত্রি’কে চরথাপ্পর মারা ও তার মামা মাসুদ রানা অসুস্থ অবস্থায় রাত্রি’কে উক্ত দোকান থেকে বাড়িতে নিয়ে গিয়েছে মর্মে সত্যতা পাওয়া যায়।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ভিকটিমের নানি নূরজাহান বেগম বাদী হয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানায় ফরিদ মিয়া (৫০) পিতা মৃত আফতাব উদ্দিন, স্থায়ী ঠিকানা- গ্রাম: মালিতা, থানা-পলাশ, জেলা-নরসিংদী, বর্তমান ঠিকানা- গ্রাম: ভেলানগর, নরসিংদী সদর, নরসিংদী-কে আসামী করে আত্মহত্যার প্ররোচণার মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ফরিদ মিয়াকে পুলিশ তার দোকান হতে গ্রেফতার করে এবং গ্রেফতারের পর আসামীকে ২২ জুন আদালতে প্রেরণ করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে  আসামীর রিমান্ডের আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত ২৩ জুন রিমান্ড শুনানীর দিন ধার্য্য করে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরন করেন। ২৩ জুন আসামীর এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। রাত্রি আত্মহত্যার ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটনে প্রাপ্ত তথ্যাদি, আলামত পর্যালোচনায় সম্ভাব্য সকল বিষয়াদিকে আমলে নিয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইনামুল হক সাগর স্বাক্ষরিত এই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

Back to top button