কবিতাসাহিত্য ও সংস্কৃতি

কবিতা

দিব্য জ্যোতি দাস

একজন কবি তার কবিতা লেখা শুরু করেছিলেন
তার লেখা তিনি থামাননি
দেশটিতে এসে গেলো এক ভয়ানক বিপর্যয়
তবুও তিনি লিখে যাচ্ছেন
হিংস্র পশুর মতো বর্বর পশুরা
দেশের নিরস্র মানুষকে মারছে
ঠিক নেকড়ের মতো
কিন্তু কবি লিখে যাচ্ছেন।
এদেশের মানুষের বুকের তাজা রক্তে
ভাসিয়ে দিলো পুরো বাংলা
বাংলার বুকে তারা সৃষ্টি করলো
রক্তের লাল সমুদ্র
আমাদের কবি তার আপন গতিতে,
তবুও লিখে যাচ্ছেন তার কবিতা
ঐ বন্য পশুর দল এই দেশকে ছাড়খার করে দিল
অনলে পুড়ে গেলো এই ভূমি
তবুও কবি, তার আপন কাজে দৃঢ়।
আমদের দেশটিকে করতে চাইলো তারা
নিজেদের ভোগ বিলাশের স্থান
বর্বরতার সাথে ধরামায়ের অশ্রু ঝরাতে লাগলো
লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করেও তাদের পিপাসা মেটেনি
তারা আরো চায় ,আরো পেতে চায়
সম্ভ্রম কেরে নিল অজশ্র মায়ের
তাদের পিপাসা এখনো রয়েছে
কবির কবিতা চলছে আগের মতো।
মায়ের দামাল ছেলেরা তাদের মুখোমুখি
দৃঢ়ভাবে দাড়াতে লাগলো
আমাদের দেশটিকে তারা ঐ পিশাচদের থেকে
মুক্ত করলো,তাদের তাড়িয়ে দিলো
আজ সেই মহান দিবস
১৬ই ডিসেম্বর আজ
আজকে কবি উঠে দাঁড়ালেন
আজ তার কবিতার পরিসমাপ্তি হলো।
শুরু হতে যাচ্ছে এক নতুন কবিতা
“বাংলাদেশ”

পারফিউম ফ্যাক্টরি

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

Back to top button