নরসিংদীর খবরশিবপুর

মাত্র ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে শিবপুরে শিশু নির্যাতনকারী শওকত আলী গ্রেফতার | শিশুটির জন্য ঈদ উপহার নিয়ে গেলেন ইউএনও

বাণী রিপোর্টঃ অভিযোগের মাত্র ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ওসি সালাউদ্দিন মিয়ার নেতৃত্বে শিশু নির্যাতনকারী শওকত আলীকে(৫০) গ্রেফতার করে শিবপুর মডেল থানা পুলিশ।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

রোববার (২ মে) দুপুরে শিবপুর উপজেলার মাছিমপুর ইউনিয়নের মিয়ারগাঁও এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ব্যক্তির নাম শওকত আলী। তিনি মিয়াগাও গ্রামের মৃত রওশন আলীর ছেলে।

The Daily Narsingdir Bani

একই সাথে অমানবিক নির্যাতনের স্বীকার ৬ বছরের সেই শিশুটির বাড়িতে গেলেন শিবপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার কাবিরুল ইসলাম খান। ২ মে (রোববার) বিকেলে তিনি শিশুটির জন্য ঈদ উপহার সহ তার শারীরিক খোঁজখবর নিতে পৌঁছে গেলেন মিয়ারগাঁও। এর আগেও তিনি আহত এই শিশুটির খবর পেয়ে তার নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে সরকারী খাদ্য সহায়তা সহ তাঁর নিজস্ব অর্থায়নে জরুরী ঔষধ ও ফলমূল কিনে দেন।ইউএনও কাবিরুল ইসলাম খানের ভালো কাজগুলো যেন শিবপুরের মাটিতে মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।
উল্লেখ্য,দুই বছর আগে শিশু নাজমুলের বাবা মারা যান। এরপর থেকে তার মা নাসরিন বেগম বাবার বাড়ি মিয়ারগাঁও গ্রামে থাকেন ও স্থানীয় একটি কারখানায় কাজ নেন।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

গত শুক্রবার বিকেলে শিশু নাজমুল বাড়ির পাশে একটি জমিতে খেলছিল। এ সময় দুষ্টুমি করার কারণে শিশুটির চাচাতো মামা শওকত আলী (৫০) শিশু নাজমুলকে দুই হাত গরুর বাছুরের সাথে বেধে দেন। পরে বাছুরটি শিশুটিকে নিয়ে দৌড় দেয় এতে নাজমুল রাস্তায় পড়ে যায়। এর ফলে শিশুটির বুকের নিচে ও পেটশহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। পরে শনিবার দুপুরে শিশুটিকে নিয়ে শিবপুর হাসপাতালে আসে তার মা ও বোন। সন্ধ্যায় এই ঘটনার বিচার দাবি করে শিবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন আহত শিশুটির মা নাসরিন বেগম। এরই পরিপ্রেক্ষিতে রোববার দুপুরে মিয়ারগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে শওকত আলীকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ব্যাপারে শিবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন বলেন, শিশু নির্যাতনের অভিযোগে শওকত আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Back to top button