পারফিউম ফ্যাক্টরী এলকোহল মুক্ত সুগন্ধির দুনিয়ায় পারফিউম ফ্যাক্টরি আপনার জন্য একটি " ব্লাইন্ড বাই" প্লাটফর্ম "পারফিউম ফ্যাক্টরি"।
নরসিংদীর খবরশিবপুর

শিবপুরে হাসপাতালের নার্সকে গণধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ,গ্রেফতার-১

The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্টঃ নরসিংদীর শিবপুরে বেসরকারি একটি হাসপাতালের নার্সকে (২০) গণধর্ষণ ও ধর্ষণের সময় ভিডিও ধারনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) মনির ভূইয়া নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে থানা পুলিশ।মঙ্গলবার রাতে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে বুধবার শিবপুর মডেল থানায় দুজনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করেন মামলা দায়ের করেন নির্যাতিতা ওই নার্সের পিতা।

আসামীরা হলো- শিবপুরের মজলিশপুর এলাকার তাঁরা ভূইয়ার ছেলে হারুন ভূইয়া (২০), একই এলাকার মতিন কমান্ডারের ছেলে মনির ভূইয়া (২০) ও অজ্ঞানামা দুজন।

নির্যাতিতা নার্সের পরিবার ও পুলিশ জানায়, শিবপুরের মজলিশপুরে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়া ছোট বোন সমস্যায় পড়েছেন জানিয়ে দ্রত যাওয়ার জন্য ওই নার্সকে ফোনে খবর দেয় অভিযুক্ত হারুন। ছোট বোনের সমস্যার কথা শুনে বোনকে ফোনে না পেয়ে রাতে নরসিংদী থেকে শিবপুরে যান ওই নার্স। যাওয়ার পথে রাত ১০টার দিকে মজলিশপুর এলাকায় পৌঁছালে অভিযুক্ত মনির ভূইয়া ছোট বোনের কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ওই নার্সকে একটি কলাক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর হারুন, মনির ও অজ্ঞাতনামা আরও দুজন তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এসময় মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিওধারন করে তারা।

পরে অজ্ঞাত দুজন চলে গেলে অভিযুক্ত হারুন ও মনির ওই নার্স অসুস্থ অবস্থায় কলাক্ষেতে পড়ে আছে বলে তার আত্মীয়কে ফোনে খবর দেয়। খবর পেয়ে নির্যাতিতা ওই নার্সের আত্মীয়রা তাকে কলাক্ষেত থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে শিবপুর থানায় অভিযোগ দেয়া হলে পুলিশ বুধবার নির্যাতিতা ওই নার্সের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠায়। অভিযুক্তদের মধ্যে মনির ভূইয়া নামে একজনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হলে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন, মামলা দায়েরের পর মনির ভূইয়া নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় সে তাঁর সম্পৃক্তার কথা স্বীকার করেছে। বাকি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button