নরসিংদীর খবররায়পুরা

রায়পুরায় ছেলেধরা সন্দেহে একজনকে গণপিটুনি, তিন শিশু উদ্ধার

শেয়ার করুনঃ
বাণী রিপোর্টঃ নরসিংদীর রায়পুরায় ছেলে ধরা সন্দেহে একজনকে গণপিটুনি নিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। এসময় তার কাছ তিন শিশু কন্যাকে উদ্ধার করা হয়। শনিবার (২৯ আগস্ট) দুপুর ১টায় রায়পুরা পৌর এলাকার হরিপুরে এ ঘটনা ঘটে। আটককৃত ওই ব্যক্তি জানান, নাম সোহেল মিয়া (২৫)। তিনি কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের কামালপুর এলাকার আল আমিন মিয়ার ছেলে।
রায়পুরায় ছেলেধরা সন্দেহে একজনকে গণপিটুনি, তিন শিশু উদ্ধার
রায়পুরায় ছেলেধরা সন্দেহে একজনকে গণপিটুনি, তিন শিশু উদ্ধার খবর পেয়ে ওই তিন শিশুর বাবা-মা এসে তাদের সন্তানদের নিয়ে গেছেন। উদ্ধারকৃত শিশুর মধ্যে পৌর এলাকার পশ্চিমপাড়ার ইজিবাইক চালক নয়ন মিয়ার মেয়ে বিথী (১০), বাদশা মিয়ার মেয়ে আদিবা (৮) ও হালিম মিয়ার মেয়ে ঝুমা (৬)। শিশু বিথী বলেন, প্রথমে ওই লোক আমাকে জিজ্ঞাসা করেন আমি নয়নের মেয়ে কিনা। উত্তরে আমি হ্যাঁ বলি। তিনি জানান, ভাড়া বাবদ বাবা তার কাছে দুই শ টাকা পাবে। সেই টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলে একটি ইজিবাইকে করে আমাকেসহ দুই খালাতো বোনকে তোলে নিয়ে যাচ্ছিল। কিছু দূরে যাওয়ার পর আমরা ভয়ে চিৎকার শুরু করি। তারপর আশপাশের লোকজন এসে গাড়ি থামিয়ে ওই ব্যক্তিকে আটক করে আমাদেরকে উদ্ধার করেন।
আটককৃত সোহেল জানান, তিনি ছেলেধরা নন। করোনায় কাজ হারিয়ে অভাবের তাড়নায় চুরি পেশায় নেমেছেন। মূলত শিশুদের কানের রিং চুরি করতে তাদেরকে গাড়িতে তোলে নিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। এর আগেও রায়পুরা পৌর এলাকা থেকে একবার স্বর্ণের গহনা চুরির কথা স্বীকার করেন তিনি।
রায়পুরা থানার সেকেন্ড অফিসার দেব দুলাল জানান, বর্তমানে তিনি থানার হেফাজতে আছেন। এ ঘটনায় রায়পুরা থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button