নরসিংদীর খবররায়পুরা

রায়পুরায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু,স্বামী পলাতক

The Daily Narsingdir Bani

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্টঃ নরসিংদীর রায়পুরায় প্রেমের বিয়ের বছর না পেরুতেই হাবিবা আক্তার (১৯) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধুর স্বামী সাকিব (১৮) আত্নগোপনে রয়েছে ।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) দুপুরে উপজেলার আমিরগঞ্জ ইউনিয়নের আমিরগঞ্জ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হাবিবা আক্তার করিমগঞ্জের নয়হাটি গ্রামের মো: জাকির হোসেনের মেয়ে। চার সন্তানের মধ্যে সে তৃতীয়। সে হাসনাবাদ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবছর এসএসসি পাস করে।

নিহতের চাচাতো ভাই আমির হোসেন জানান, গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর প্রেমের সূত্র ধরে উপজেলার করিমগঞ্জ নয়াহাটি গ্রামের জাকির হোসেনের মেয়ে হাবিবা আক্তারকে বিয়ে করে একই উপজেলার আমিরগঞ্জ ইউনিয়নের আমিরগঞ্জ গ্রামের জাহাঙ্গীর এর ছেলে সাকিব। পরে বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই সাকিব ট্রলি গাড়ি কেনার টাকার জন্য প্রায়ই হাবিবাকে মারধর করতো। এ ঘটনা প্রায়ই মিমাংসা করে দিতো ছেলের চাচা গোলাপ। পরে এক পর্যায়ে মেয়ের কষ্ট সইতে না পেরে হাবিবার পরিবার প্রায় আট লক্ষ টাকা সাকিবকে দেয়। পরে সে ট্রলিও ক্রয় করে। কিছুদিন যেতে না যেতেই আবার সাকিব টাকার জন্য হাবিবাকে মারধর করে। এক পর্যায়ে এসব সর্হ্য করতে না পেরে হাবিবা বাপের বাড়ি চলে যায়। পরবর্তীতে হাবিবা নিজেই বুধবার (২২ জুলাই) রাতে স্বামীর বাড়িতে আসে।

পরে (২৩ জুলাই) বৃহস্পতিবার বিকেলে শুনতে পাই হাবিবা মারা গেছে। এসে দেখি তার দেহ ঘরের খাটে পড়ে আছে। তিনি আরো বলেন, আমরা এসে বাড়িতে কোন লোকজনকে দেখতে পাই নাই। এটা একটা পরিকল্পিত খুন। প্রশাসনের নিকট আমার বোনের খুনির যেন সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে নিহতের বাবা জানান, মেয়েটার বিয়ে হয়েছে ১ বছরও হয় নাই প্রায়ই হাবিবাকে তার স্বামী সাকিব মারতো এজন্য সে স্বামীর বাড়িতে আসতে চাইতো না। টাকার জন্যই সাকিব এমনটা করতো এবং আমরা তাকে অনেক টাকাও দিয়েছি। তিনি আরো বলেন, অনেকে এটি আত্মহত্যা বলে দাবি করছে। এটি কোন আত্নহত্যা নয় এটি একটি পরিকল্পিত হত্যা। আমি আমার মেয়ের হত্যাকারীর বিচার চাই।

আমিরগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই রিয়াজ উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি শুনার পর আমি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এই এলাকায় আসি। লাশের সুরতহাল সম্পূর্ণ শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button