জাতীয়

রাষ্ট্রদূত হলেন মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া ও সহিদুল ইসলাম

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্টঃ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সাবেক চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এবং বিমসটেক মহাসচিব মো. সহিদুল ইসলামকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

সাবেক জ্যেষ্ঠ সচিব মোশাররফকে যোগদানের তারিখ থেকে দুই বছরের জন্য রাষ্ট্রদূত পদে চুক্তিতে নিয়োগ দিয়ে বুধবার আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

আর বিমসটেকের মহাসচিব পদে চুক্তিতে নিয়োজিত পররাষ্ট্র ক্যাডারের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহিদুলের অভোগকৃত অবসরোত্তর ছুটি ও তৎসংশ্লিষ্ট সুবিধা স্থগিতের শর্তে যোগদানের তারিখ থেকে দুই বছরের জন্য রাষ্ট্রদূত হিসেবে চুক্তিতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এই দুই কর্মকর্তাকে রাষ্ট্রদূত পদে নিয়োগ দিয়ে তাদের চাকরি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখন তাদের রাষ্ট্রদূত হিসেবে পদায়ন করবে।

২০১০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সেতু বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে নিয়োগ পাওয়া মোশাররফ ওই বছরের ২৯ জুলাই পদোন্নতি পেয়ে সচিব হন।

তখনই পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উঠলে দুর্নীতি দমন কমিশন মামলা করে। তাতে প্রধান আসামি করা হয়েছিল মোশাররফকে।

মামলা ও গ্রেপ্তার হওয়ার পর তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছিল সরকার। তবে জামিনে মুক্ত হওয়ার পর চাকরি ফিরে পান তিনি।

চাকরিতে ফেরত আসার পর মোশাররফ বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান এবং প্রাইভেটাইজেশন কমিশনের সদস্যের দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৪ সালের ২৬ অক্টোবর শিল্প সচিব পদে নিয়োগ পান তিনি। ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল পদোন্নতি দিয়ে জ্যেষ্ঠ সচিব করা হয় তাকে।

২০১৬ সালের ৩০ জুন অবসরোত্তর ছুটিতে (পিআরএল) যাওয়ার কথা ছিল মোশাররফের। এর একদিন আগে ২৯ জুন তার পিআরএল বাতিল করে এক বছরের চুক্তিতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব নিয়োগ দেয় সরকার।

এরপর দুই বছরের চুক্তিতে এনবিআর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button