নরসিংদীর খবর

প্রধানমন্ত্রীর কাছে নরসিংদী কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের চার মানবিক দাবী

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট : প্রাথমিক শিক্ষা বিস্তারে সরকারী স্কুলগুলোর পাশাপাশি অন্যতম ভূমিকায় দৃশ্যমান কিন্ডারগার্টেন স্কুল। দেশের করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ থাকা কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোর উদ্যোক্তা ও শিক্ষকরা সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত। সরকারী সহায়তা না পেলে ও ঘুরে দাড়াতে না পারলে প্রাথমিক শিক্ষার ভিত নড়বড়ে হয়ে পড়বে এমনটি মনে করেন অভিজ্ঞজনরা।

নরসিংদী জেলায় রয়েছে ৪শতাধিক কিন্ডারগার্টেন স্কুল। অধ্যয়রত শিশু শিক্ষার্থীর সংখ্যা লাখের কাছাকাছি। ফলাফল ও সংস্কৃতির দিক থেকে এগিয়ে রয়েছে এসব বেসরকারী স্কুলগুলো। সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা না থাকায় ছাত্রদের বেতনের টাকার উপর নির্ভরশীল শিক্ষকদের রুটিরুজি। নুন্যতম শ্রম মুজুরীতে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজের অংশিদার কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষকগণ।

জেলার কিন্ডারগার্টেন স্কুল ও শিক্ষকদের শিক্ষাক্ষেত্রে অবদানের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় আনেন নরসিংদীর জেলা প্রশাসক। গত ১৬ জুলাই জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা মেজিষ্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনের সভাপতিত্বে  কিন্ডারগার্টেন শিক্ষদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।    সভায় শিক্ষক নেতৃবৃন্দ করোনা পরিস্থিতিতে তাদের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। প্রাথমিক শিক্ষায় অবদান রাখায় জাতীয়ভাবে পুরষ্কার প্রাপ্ত শিক্ষাবান্ধব জেলা প্রশাসক শিক্ষকদের সার্বিক সহযোগীতাসহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ে তাদের সমস্যাগুলো উপস্থাপনের আশ্বাস দেন। সভাশেষে জেলার বিভিন্ন কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে প্রিন্সিপাল এম. হানিফাকে আহবায়ক করে ৬সদস্যর কমিটি গঠন করা হয়।

রবিবার (১৯ জুলাই) আহবায়ক কমিটির সমন্বয়ক নরসিংদী সদর উপজেলার এসিল্যান্ড মোঃ শাহ আলম মিয়ার আহবানে ও সভাপতিত্বে আহবায়ক কমিটির প্রথম সভা সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।  উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী জেলা কিন্ডারগার্টেন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রিন্সিপাল এম. হানিফা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মুজিবুর রহমান, নরসিংদী জেলা কিন্ডারগার্টেন স্কুল ঐক্য পরিষদ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক কমিশনার ইয়াসমিন সুলতানা, নরসিংদী সদর উপজেলা কিন্ডারগার্টেন স্কুল কল্যান পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ শাহিনুর মিয়া এবং মাধবদী থানা কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোমেন মিয়া প্রমূখ।

সভায় এসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দ শিক্ষাবান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে চারদফা দাবি তুলে ধরার প্রস্তাব করেন। অন্যতম দাবীগুলো হলো- চাকুরীরত সকল শিক্ষককে সরকারী আর্থিক সহায়তার আওতায় আনা, ভাড়ায় চালিত কিন্ডারগার্টেনগুলোর করোনাকালীন বকেয়া ভাড়া সম্পর্কে কিছুটা সহনশীলতা প্রদর্শনের ব্যাবস্থা গ্রহন বা কিস্তিতে পরিশোধের ব্যবস্থা করা এবং স্কুল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ব্যাংক লোনের ব্যাবস্থা করা ইত্যাদি।

উল্লেখ্য, করোনা মহামরী শুরু হওয়ার পর থেকে দীর্ঘ চার মাস বন্ধ থাকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সরকারী প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারী বেতন পেলেও বেহাল অবস্থায় পড়ে যায় বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কিছু নন এমপিও প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারী সরকারী প্রনোদনার আওতায় আসলেও এর বাইরে থেকে যায় দেশের একটি বৃহৎ জনগোষ্ঠি কিন্ডারগার্টেন শিক্ষক পরিবার। এ সকল কিন্ডারগার্টেনগুলোর প্রতি সরকারের ইতিবাচক পদক্ষেপ শিক্ষানীতি পূর্ণাঙ্গরুপে বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে মনে করেন অভিজ্ঞমহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button