অপরাধনরসিংদীর খবর

নরসিংদী ডিবি’র অভিযানে আন্তঃজেলা, অপহরণকারী, ছিনতাই ও চাঁদাবাজ চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার

অপরাধে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার ও মোবাইল সেট উদ্ধার

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট : নরসিংদী ডিবি পুলিশের অভিযানে আন্ত:জেলা সংঘবদ্ধ অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়কারী, ছিনতাই এবং চাঁদাবাজ চক্রের তিন সদস্য গ্রেফতার হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার, অপহরণ ও মুক্তিপণ গ্রহনে ব্যবহৃত মোবাইল সেট।

আজ শনিবার (১৮জুলাই) তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নরসিংদী ডিবি পুলিশের এসআই জাকারিয়া আলম ও সঙ্গীয় ফোর্স অপরাধীদের গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলো- (১) মোঃ সাখাওয়াত হোসেন @ শওকত (৩৪),পিতা-মোস্তফা কামাল, সাং-চলনা (নামাপাড়া), থানা-পলাশ, (২) মোঃ নজরুল ইসলাম(২৯), পিতামৃত- আঃ ওহাব মিয়া, সাং-কুড়েরপাড়, থানা – মাধবদী, (৩) মোঃ হাবিবুব রহমান (৩২),পিতামৃত-আয়েছ আলী, সাং- আশমান্দীরচর, থানা-মাধবদী, সর্বজেলা-নরসিংদী। তাদের বিরুদ্ধে নরসিংদী মডেল থানায় নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে।

নরসিংদী জেলা পুলিশের মিডিয়া সমন্বয়ক ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর রুপণ কুমার সরকার জানান,জেলা পুলিশ নরসিংদীর নিকট বেশ কয়েকদিন যাবত অভিযোগ আসতেছিল যে,একটা সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্র প্রাইভেটকারে এসে নরসিংদী নতুন বাসস্ট্যান্ড, সাহেপ্রতাপ, পাচদোনা, ভাটপাড়া, পুরিন্দা এলাকায় উত্তরবঙ্গ থেকে আসা বিভিন্ন বাস থেকে চাঁদা আদায় করে আসছে। জেলা পুলিশ সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ দলটিকে গ্রেফতারে উৎপেতে থাকে।

The Daily Narsingdir Baniইতোমধ্যে শুক্রবার (১৭জুলাই) জনৈক মোঃ তিতাস মিয়া, নরসিংদী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে অভিযোগ করে যে, তিনি সাদ্দাম এন্টারপ্রাইজ পরিবহন বাসের সুপারভাইজার। তিনি ৩০ জুন’২০ যাত্রীবাহী বাস নিয়ে কুড়িগ্রাম হতে নরসিংদী আসে এবং একই তারিখ সকাল ১০টায় নরসিংদী নতুন বাসস্ট্যান্ড হতে কয়েকজন অজ্ঞাতনামা দুষ্কৃতকারী প্রাইভেটকারে উঠিয়ে নিয়ে তাকে গাজীপুর আটক রাখে। তার বাড়িতে দফায় দফায় ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী করে টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকী দেয়া হয়। আসামীদের দেওয়া দুইটা বিকাশ নম্বরে ১০ হাজার টাকা প্রদান করলে আসামীরা  গত ১জুলাই  ১২টায় নরসিংদী পাঁচদোনা মোড়ে তিতাস মিয়া কে ফেলে রেখে চলে যায়। সে অপরাধীদের প্রাইভেটকার নম্বর জানে এবং আসামীদের দেখলে চিনবে বলে পুলিশকে জানায়।

ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ডিবি’র চৌকশ অফিসার এসআই জাকারিয়া আলমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।এসআই জাকারিয়া আলম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের অবস্থান সনাক্ত করেন এবং বাদীর (ভিকটিম) সনাক্ত মতে অপহরন ঘটনায় জড়িত আন্তঃজেলা সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের তিনজন (১) মোঃ সাখাওয়াত হোসেন @ শওকত (৩৪), (২) মোঃ নজরুল ইসলাম (২৯), (৩) মোঃ হাবিবুর রহমান (৩২) দের গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত অপরাধীদের দেওয়া তথ্য মতে অপহরন কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার উদ্ধার করেন। অপহরণ ও মুক্তিপণ গ্রহণে ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর সম্বলিত মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।

আসামীরা আন্তঃজেলা অপহরণ, ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্য, তারা সংঘবদ্ধভাবে নরসিংদী, গাজীপুর, নারায়নগঞ্জ জেলার মহাসড়কে অপহরণ, ছিনতাই কার্যক্রম করে আসতেছিল।তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় খুন,অপহরণ, ছিনতাই,মাদক মামলা আছে। জেলা পুলিশের একাধিক টিম এই ধরনের অপরাধীদের গ্রেফতারে কাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button