সারাদেশনরসিংদীর খবর

নরসিংদীতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে পা হারিয়েছে সিটি  ইউনিভার্সিটির ছাত্র

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

মোঃ আকিব রাসেল : নরসিংদীতে বে-পরোয়া ও দ্রুতগামী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে জীবনের শুরুতে পা হারিয়ে পুঙ্গত্ববরণ করেছে সিটি ইউনিভার্সিটির সিএসই বিভাগের ৩৮ তম ব্যাচের ছাত্র আশরাফুল আলম (২৪)। গুরুতর আহত হয়েছেন তার মামা চঞ্চল মৈশান (৩০)।

বুধবার (১৭জুন) সকাল সাড়ে নয়টায় মোটর সাইকেলযোগে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া যাওয়ার পথে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের রায়পুরা উপজেলার মরজাল এলাকায় পৌঁছলে উত্তরা পরিবহণের একটি বেপরোয়া দ্রুতগামী বাস তাদের মুখোমুখি চাপা দেয়।

এতে ঘটনাস্থলে মোটর সাইকেল চালক ভার্সিটির ছাত্র আশরাফুল এর ডান পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ও আরোহী চঞ্চল মৈশান গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম হয়ে রাস্তার পাশে পড়ে কাতঁরাতে থাকে। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করে।

The Daily Narsingdir Bani

দুর্ঘটনায় আহত আশরাফুল ব্রাহ্মনবাড়ীয়া জেলার সরাইল উপজেলার কালিক্চ্ছ এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। আহত মামা চঞ্চল মৈশান এর বাড়ী একই এলাকায়।

আজ শনিবার (২০জুন)ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভার্সিটি ছাত্র আশরাফুল নরসিংদীর বাণীকে জানান, আমি ঢাকা সাভার কলমা-১ এলাকায় থাকি। আমি ও আমার মামা মোটর সাইকেলযোগে সাভার থেকে গ্রামের বাড়ী যাচ্ছিলাম। মরজাল এলাকায় পৌঁছলে ঢাকাগামী উত্তরা পরিবহণের একটি বে-পরোয়া যাত্রীবাহি বাস বেআইনীভাবে সামনা সামনি আমাদের চাপা দেয়। রাস্তা থেকে নেমে গিয়েও আমি রক্ষা পাইনি। মৃত্যুর হাত থেকে আল্লাহ আমাকে রক্ষা করলেও আমি জীবনের শুরুতে পুঙ্গত্ববরণ করেছি। আমি এর বিচার চাই।

আহত ভার্সিটি ছাত্রের বাবা জাহাঙ্গীর আলম জানায়, দু’দিন পর আজ আমার ছেলের জ্ঞান ফিরেছে। এ বয়সে আমার বড় ছেলেটি পা হারিয়ে পঙ্গু হয়ে গেল। আমার শ্যালক গুরতর জখম অবস্থায় একই হাসপাতালে ভর্তি আছে। আর যেন কোন পরিবারের সন্তান এভাবে দুর্ঘটনার শিকার না হয়। ছেলের চিকিৎসায় আমি ব্যস্ত থাকায় হাইওয়ে থানায় যেতে পারিনি। আমি মামলা দায়ের করব। এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

স্থানীয়রা জানায়, মোটর সাইকেলটি নিয়মমাফিক রাস্তার পাশ ঘেঁষে ভৈরবের দিকে যাচ্ছিল। ঢাকাগামী একটি বাসকে বে-আইনীভাবে ও দ্রুত গতিতে ওভারটেক করে একই দিকে যাচ্ছিল উত্তরা পরিবহণের একটি যাত্রীবাহী বাস। ওভার টেকিং এর সময় মোটরসাইকেলটি রাস্তার পাশ ঘেঁষে চলছিল। দ্রুতগামী উত্তরা পরিবহণের বাসটি মোটর সাইকেলটিকে সামনা সামনি চাপা দিয়ে চলে যেতে থাকলে স্থানীয়রা বাসটিকে আটক করে। আহতদের দ্রুত ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

খবর পেয়ে ইটাখলা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আটকৃত বাসটিকে উদ্ধার করে ভৈরব হাইওয়ে থানায় হস্তান্তর করেন।

এ ব্যাপারে ভৈরব হাইওয়ে থানার ওসি মোঃ মামুন রহমান নরসিংদীর বাণীকে বলেন, উত্তরা পরিবহনের(গাড়ি নম্বর-ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৩৯৫২) বাসটিকে উদ্ধার করে থানায় এনে রাখা হয়েছে।এখনো মামলা হয়নি।আহত ভিকটিম পরিবারের কেউ এখনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি। পরিবহণের লোকজন যোগাযোগ করেছে। তবে ভিকটিম পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করলে আমরা মামলা গ্রহন করবো।

এদিকে সিটি ইউনির্ভসিটির শিক্ষার্থীরা বিচার চেয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অতি শীগ্রই যেন বাস চালক কে গ্রেফতার করে এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button