পারফিউম ফ্যাক্টরী এলকোহল মুক্ত সুগন্ধির দুনিয়ায় পারফিউম ফ্যাক্টরি আপনার জন্য একটি " ব্লাইন্ড বাই" প্লাটফর্ম "পারফিউম ফ্যাক্টরি"।
সাহিত্য ও সংস্কৃতিকবিতা

এ যুগের হাতেম তাঈ

The Daily Narsingdir Bani

অর্থ বিত্তে যার ভরেনা কভু প্রাণ আর করে না দান
সে কখনো হতে পারেনা এই পৃথিবীতে মহান।
চারপাশে আর দেশের ভেতর আছে অনেক ধনী
তাদের অনেকেই শুধু নিজের জন্য কভু নহে দুঃখীর পাশে শুনি।
ভোগে নয় ত্যাগেই সুখ এই সত্যটি জানেনা অনেকে
জানতো যদি তা, তাহলে সমাজে থাকতোনা কেউ দুঃখে।
ধনীর ধনে গরীবের হক আছে বুঝেনা তা কেউ কেউ
বুঝতো যদি এই সত্যটি সকল ধনী আমাদের দেশে ভাই।
সকল ক্ষেত্রে হতো উন্নয়ন দেখতো মানুষ বাঁচার স্বপ্ন
ধনী শ্রেণীর অনেকেই ভোগ আর বিদেশে অর্থ পাচারে মগ্ন।
অনেকে আবার নামী-দামী হোটেলে জলসা করে থাকেন
দেশের জন্যে মানুষের জন্য নাইবা তারা কিছু করেন।
অনেক বাদশা অনেক ধনী আবার অমর হয়েছেন পৃথিবীতে
এমনই একজন দেশবরেণ্য দানবীরের জন্ম আমাদের নরসিংদীতে।
মানুষের জন্য-সমাজের জন্য আর দেশের জন্যে সর্বদা তিঁনি উদার
সারাক্ষণ ভাবেন তিঁনি উপার্জন সব করবো দান কল্যাণে মানুষের।
পুরো দেশে তাঁর সুনাম ছড়িয়েছে একজন সমাজসেবক হিসেবে
তাঁর ভাবনা অর্থ-সম্পদ আল্লাহর দান, তা অবশ্যই দান করতে হবে।
শিক্ষাক্ষেত্রে তাঁর অবদান পুরো দেশের মাঝে অন্যতম
সেবার তুলনায় বাংলাদেশে কেউ নেই তাঁর সম।
হাতের কাছে যা পান যখন অকাতরে করেন তিঁনি দান
তাঁর সমাজ সেবা আর দানে নরসিংদীর বেড়েই চলছে মান।
পুরো দেশে নরসিংদীকে চিনে সবাই তার কর্মের জন্যে
এমন সন্তান মহান আল্লাহ পাঠিয়েছেন করতে মোদের ধন্য।
যিনি সর্বদা বলেন মরণ হলে ধন-সম্পদ কারো সাথে যায়না
দান-দক্ষিণা আর মানবসেবা ছাড়া আল্লাহর ভালোবাসা কেউ পায়না।
দেশব্যাপী স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় আর মেডিক্যাল কলেজে শুধু নয়
মসজিদ-মাদ্রাসাসহ সকল স্তরে তাঁর দানের ছোঁয়ার কথা শোনা যায়।
তাঁর হাতে হয়েছে কর্ম-সংস্থান হাজারো মানুষের এই দেশে
সর্বদা তিনি হাতভরে দান করে চলেছেন মানুষকে ভালোবেসে।
নরসিংদী জেলার ভেতরে এমন কোন জায়গা নেই বাকী
যেখানে গেলে সবাই দেখতে পান উনার উন্নয়ন ভেলকি।
মানব আর সমাজ সেবায় অনেক পুরষ্কার পেয়েছেন তিঁনি
তার দান-উন্নয়ন আর সেবার খবর পুরোপুরি ক’জন জানি।
অতি সাদাসিধে মানুষ তিঁনি বিলাসিতা মোটেও করেননা
অচেনা কেউ তাঁর কাছে গেলে তাকে কেউ দেখে চিনেন না।
মানব সেবা তার একমাত্র নেশা বুঝেন না অন্য কিছু
পদ-পদবী আর সুনামের জন্যে তিনি করেন না এতো কিছু।
জেলার ভেতর কেউ থাকবেনা অর্ধাহারে আর অনাহারে
কোন দুর্যোগে নয় কেবল, সব সময়ই তিঁনি মানব সেবা করে।

করোনা প্রতিরোধ কালে তাঁর সেবার পরিধি খুবই ব্যাপকদান করে প্রচার করতে তিনি কখনো রাখেননি আলোচক।
মানুষের তরে তাঁর সকল সম্পদ দানে প্রস্তুত তিঁনি সর্বদা
সাথে সাথেই পূরণ করে থাকেন তার করা সব ওয়াদা।
দেশের বুকে এমন দানবীর আর সমাজ সেবক খুবই বিরল
মানুষ হিসেবে তিঁনি খুবই মহান, থাকেন সর্বদা সহজ-সরল।
দুষ্টচক্রের কারণে মাঝে-মধ্যে হয়ে থাকলেও বদমেজাজী
বুঝতে পারেন তিঁনি স্বার্থলোভীদের উদ্দেশ্য আর কারসাজী।
শিক্ষা জীবনে মেরিন একাডেমির ডিপ্লোমার ছিলেন ছাত্র
পরিশ্রম আর মেধা দিয়ে তিনি আজ উচ্চ সম্মানের পাত্র।
এ যুগের হাতেম তাঈ তিঁনি, কেউ বলেন তাঁকে হাজী মহসিন
তিঁনি হলেন আবদুল কাদির মোল্লা নরসিংদীর গর্বিত সন্তান।

লিখক : প্রিন্সিপাল এম এ হানিফা
লিখক : প্রিন্সিপাল এম এ হানিফা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button