নরসিংদীর খবর

আজ শিক্ষক ও সাংবাদিক মরহুম ফজলুল হক ভূঁইয়া এর ১৭তম মৃত্যু বার্ষিকী

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট : শিক্ষকগণ সমাজে মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে স্বীকৃত ও সমাদৃত। যারা এ সত্যকে হৃদয়ে গেঁথে পেশাগত দায়িত্ব পালনে আত্মনিবেদিত তারাই হন স্মরণীয় ও বরণীয়। এমনই একজন মরহুম ফজলুল হক ভূঁইয়া। যিনি হক স্যার হিসেবে শিক্ষার্থী অভিভাবক তথা সর্বমহলে সুপরিচিত। তিনি নরসিংদী শহরের ব্রাক্ষন্দী কে কে এম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ছিলেন।

তিনি সততা ও নিষ্ঠার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতেন। শিক্ষার্থীদের কোমল কঠোর শাসনের বেড়াজালে আবদ্ধ রেখে পিতৃ স্নেহ মমতায় শিক্ষার্থীদের হৃদয়-মনকে সুশিক্ষার আলোয় আলোকিত করতে সর্বদা সচেষ্ট ছিলেন। যারা হক স্যারের আদর্শ ও চিন্তা চেতনায় নিজকে উজ্জীবিত করতে পেরেছে তারাই প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে উঠেছে এবং কর্মজীবনে স্ব-স্ব অবস্থানে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

হক স্যার শুধুমাত্র মানুষ গড়ার কারিগরই ছিলেন না তিনি নরসিংদীর স্থানীয় সাংবাদিকতার অন্যতম পথিকৃৎও বটে । এক পর্যায়ে তিনি সুস্থ সুন্দর সমাজ বিনির্মাণের প্রত্যাশায় সমাজ সংস্কারক এর ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণের পর সময়ের সাহসী প্রকাশনা স্লোগানে সাপ্তাহিক আজকের চেতনা নামে একটি পত্রিকার সম্পাদনা ও প্রকাশনা শুরু করেন। সমাজের অন্যায়- অত্যাচার, দূর্নীতি- অনিয়ম তথা নানা অসঙ্গতির কথা পত্রিকায় তুলে ধরেন। তার সাহসী লেখনি, সম্পাদনা ও প্রকাশনার কারণে পত্রিকাটি সর্বস্তরের পাঠক মহলে সমাদৃত হয়। যা আজও বিদ্যমান রয়েছে। যে সমস্ত তরুণ উদ্যমী সংবাদকর্মী হক স্যারের স্নেহধন্য হয়েছে তারা আজ স্ব স্ব অবস্থানে প্রতিষ্ঠিত।

The Daily Narsingdir Baniআজ এ ক্ষণজন্মা কালজয়ী কর্মবীর সর্বজন শ্রদ্ধেয় হক স্যারের ১৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী । ১৯৩৪ সালে নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে তিনি জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০০৩ সালের ১৫ জুন তিনি ইহলোকের মায়া ত্যাগ করেন । মৃত্যু বার্ষিকীতে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন নরসিংদী সংবাদপত্র পরিষদের সম্পাদকগণ, জেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ ও নানা শ্রেণী পেশার মানুষ। পরম করুণাময় সৃষ্টিকর্তা তুমি এ কর্মবীরকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান কর। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button