নরসিংদীর খবরমনোহরদী

নরসিংদীর মনোহরদীতে বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে ধর্ষণ,থানায় মামলা

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট :নরসিংদীর মনোহরদীতে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে ধর্ষণের ফলে ৪মাসের অন্ত:সত্ত্বা এক বাকপ্রতিবন্ধী নারী।এ ঘটনায় বিবাহিতা লম্পট আবুল হোসেন এর বিরুদ্ধে মনোহরদী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার একদুয়ারিয়া ইউপির বিলাগী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বুধবার (২২ এপ্রিল) ধর্ষিতা বাদী হয়ে মনোহরদী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযুক্ত ধর্ষক আবুল হোসেন বিলাগী গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে।

জানা যায়,নির্যাতিতা নারী গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন । প্রতিদিন কাজে যাওয়া আসা যাওয়ার পথে লম্পট আবুল হোসেন বিভিন্ন সময় তাকে ইশারা ইঙ্গিতে তাকে কু-প্রস্তাব দিতো। এতে সাড়া না দিলে ইশারায় প্রতিবন্ধী নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখায়। গত ৯ সেপ্টেম্বর”১৯ সন্ধ্যায় গৃহপরিচারিকার কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় তাকে একা পেয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে পাশের জঙ্গলে নিয়ে ভিকটিমকে ধর্ষণ করে আবুল  হোসেন। পরবর্তীতে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে টানা শারিরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে আবুল।

এরইমধ্যে ভিকটিম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। শারিরিক পরিবর্তন দেখা দিলে ভিকটিম আবুল হোসেনকে বিয়ে করার জন্য চাপ দেয়। অবস্থা বেগতিক দেখে আবুল হোসেন বিষয়টি তার স্ত্রীর সুফিয়া আক্তারকে জানান। পরে তারা ওষুধ খাইয়ে অন্তঃসত্ত্বা ভিকটিমকে গর্ভপাত ঘটানোর জন্য চেষ্টা করেন। গর্ভপাত ঘটাতে রাজি না হওয়ায় আবুল হোসেন ও তার স্ত্রী ভিকটিমকে মারধর করে আহত করে। পরে আহত অবস্থায় মনোহরদীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক জানান ওই নারী চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

এ ঘটনায় অন্ত:সত্বা ভিকটিম বাদী হয়ে আবুল হোসেন এবং তার স্ত্রী সুফিয়া আক্তারকে আসামি করে মনোহরদী থানায় অভিযোগ করেছেন।

মনোহরদী থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, ধর্ষণের শিকার নারী বাদী হয়ে দুজনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button