নরসিংদী সদরনরসিংদীর খবর

মাধবদীর কাঠালিয়ায় খাদ্য সামগ্রীর দাবীতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট : নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী থানার কাঠালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা খাদ্যসামগ্রী পাওয়ার দাবীতে বিক্ষোভ করেছে। সোমবার (২০ এপ্রিল ) বিকেলে এলাকার কান্দাপাড়া প্রাইমারি স্কুলের সামনে রাস্তায় বাঁশ দিয়ে অবরোধ করে তারা বিক্ষোভ করেন।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

এলাকা বাসীর অভিযোগ কাঠালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন মোল্লা ও পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জসিম ত্রাণ কাজে দুর্নীতি করে যাচ্ছেন।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

এ বিষয়ে স্থানীয় অধিবাসী সাইদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কাঠালিয়া, খড়িয়া, ডেউকাদি, কল্লানন্দি এলাকার কেউ সরকারী খাদ্য সামগ্রী পায়নি। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বীণা মেম্বার চার বছর আগেও ভাড়া বাড়িতে থাকতেন আজ তিনি বড় দালান বাড়ি করছেন কোন উৎস থেকে? হারুন চেয়ারম্যান নির্বাচনের আগে এক কাপ চা খাওয়ারও টাকা ছিল না আজ তিনি একশত মেশিনের মালিক কি ভাবে হলেন? তিনি বলেন, আমরা দুর্নীতি দমন কমিশন, ইউ এন ও এর কাছে হারুন চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে দরখাস্ত করি যাতে দেখানো হয়েছে তিনি কি ভাবে ভূয়া বিল বানিয়ে এক কোটি বিশ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

অভিযোগে তিনি আরো বলেন, হারুন চেয়ারম্যান, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, বিধবা ভাতা দেওয়ার নামে সাধারণ মানুষ থেকে হাজার হাজার টাকা নিয়েছেন। চেয়ারম্যান সত্তরটি ঘর দেয়ার নামে জন প্রতি ত্রিশ হাজার থেকে চল্লিশ হাজার টাকা পর্যন্ত নিয়েছেন কিন্তু কেউ ঘর পায়নি।

অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া সাবেক মহিলা মেম্বার বলেন, মানুষের পেটে ভাত নাই। তারা ক্ষুধার্ত তাই রাস্তায় নেমে এসেছে। আমাদের দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা এখানেই থাকবো। আমরা সরকারি ত্রাণ সুষ্ঠভাবে বন্টণ চাই।

এলাকাবাসীর অভিযোগ মেম্বার, চেয়ারম্যান মিলে ত্রাণ তাদের নিজেদের লোক কে দিয়েছে প্রকৃত গরীবদের কে বঞ্চিত করেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জসিম ফোনে সাংবাদিকদের বলেন আমি এ ব্যপারে কিছুই জানিনা।  তিনি হারুন চেয়ারম্যান এর সাথে কথা বলার পরামর্শ  দেন।

অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যানের নাম্বারে বার বার কল দিলেও তার নাম্বার ব্যস্ততা দেখানোর কারণে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button