অপরাধনরসিংদীর খবরবেলাবোমহিলাঙ্গন

নরসিংদীর বেলাবতে বিয়ের প্রলোভনে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার-২

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট: নরসিংদীর বেলাবতে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে কলেজ ছাত্রীকে (১৯) একাধিকবার ধর্ষণ ও ধর্ষকের দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে ইভটিজিং এর অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার (২৯ মার্চ) নির্যাতিত কলেজ ছাত্রী বাদী হয়ে ধর্ষক প্রেমিকসহ ৩ জনকে আসামী করে বেলাব থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ধর্ষকের দুই সহযোগী সজিব মিয়া (২০) ও রিয়াজ মিয়াকে (২১) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে নরসিংদী আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলা দায়েরের পর ধর্ষক প্রেমিক রাসেল মিয়া (১৯) পালিয়ে গেছে। বেলাব থানার উপ পরিদর্শক মীর সোহেল রানা মামলার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, বেলাব উপজেলার দীঘলদীকান্দা গ্রামের অনার্স পড়ুয়া ছাত্রীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী জুহুরিয়াকান্দা গ্রামের মুর্শিদ মিয়ার ছেলে ভৈরব হাজী আসমত কলেজের অনার্স পড়ুয়া ছাত্র রাসেল মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্ক চলাকালে কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে ১ বছর ধরে একাধিকবার ধর্ষণ করে প্রেমিক রাসেল।

সর্বশেষ গত ৩ মার্চ রাত সাড়ে ১১টায় কলেজ ছাত্রীকে তার বাড়ির পাশের একটি ফসলী জমিতে নিয়ে ধর্ষণ করে প্রেমিক রাসেল। এ সময় ওই ছাত্রী প্রতিশ্রুতি মোতাবেক প্রেমিক রাসেলকে বিয়ে করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। নানা তালবাহানা করে কালক্ষেপন করে রাসেল। তালবাহানা বুঝতে পেরে কলেজ ছাত্রী বিষয়টি রাসেলের পরিবারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে কৌশলগত কারণে রাসেল বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। গত ১৬ মার্চ এসব ঘটনায় রাসেলের বিরুদ্ধে বেলাব থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন কলেজ ছাত্রী।

সাধারণ ডায়েরির পর অভিযুক্ত রাসেল ও তার পরিবার ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীর ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার তার বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দেয়। এমন কী প্রতিবেশী রহিছ মিয়ার ছেলে সজিব মিয়া ও রাজু মিয়ার ছেলে রিয়াজ মিয়াকে উত্যক্ত করার জন্য কলেজছাত্রীর পিছনে লেলিয়ে দেয়। রাসেলের বন্ধু সজিব ও রিয়াজ ছাত্রীর চরিত্র নিয়ে এলাকায় বদনাম রটাতে থাকে। ভিকটিম বাড়ির বাইরে বের হলে তাকে বিভিন্ন অশ্লীল মন্তব্যসহ উত্ত্যক্ত করতে থাকে। অবশেষে তাদের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে ছাত্রীটি তার মামার বাড়ি গিয়ে আশ্রয় নেয়।

খবর পেয়ে শনিবার (২৮ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টায় সজিব ও রিয়াজ মামার বাড়িতে গিয়েও ছাত্রীকে অশ্লীল মন্তব্যসহ তাকে টানা হেচ্ড়া করে। এ সময় তার ডাক-চিৎকারে আশেপাশের লোকজন বখাটে সজিব ও রিয়াজকে আটক করে বেলাব থানায় সোপর্দ করে। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার কলেজ ছাত্রী বাদী হয়ে ধর্ষণ ও ইভটিজিং এর দায়ে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বেলাব থানার উপ পরিদর্শক মীর সোহেল রানা বলেন, এ ঘটনায় বেলাব থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। সজিব ও রিয়াজ নামে দুই আসামীকে গ্রেফতার করে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে নরসিংদী আদালতে পাঠানো হয়েছে। পলাতক অভিযুক্ত ধর্ষক রাসেলকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button