অপরাধনরসিংদীর খবরপলাশ

পলাশে ব্যবসায়ীকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে আহত করলো পুলিশ কর্মকর্তা

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট: নরসিংদী পলাশ উপজেলায় জমি ক্রয় করতে বায়না করায় এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে এক পুলিশ কর্মকর্তা। শনিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ বাজার গ্রামে পুলিশ কর্মকর্তার নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে ওই ব্যবসায়ীর উপর এমন নির্যাতন চালানো হয়েছে। আহত অবস্থায় ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। পুলিশ কর্মকর্তার নির্যাতনে গুরুতর আহত পলাশ বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী মোরশেদ এর মাথায় ৭ টি সেলাই দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। নির্যাতনকারী পুলিশ কর্মকর্তার নাম জ্যোতির্ময় সাহা (অপু)। তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুর জোনের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) বলে জানা যায়।

পারফিউম ফ্যাক্টরি The Daily Narsingdir Bani

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মোরশেদ জানান, গত ১৫ দিন আগে পলাশের সাবেক ইসলাম চেয়ারম্যানের স্ত্রী মরিয়ম বেগমের নিকট থেকে পলাশ বাজার এলাকায় সাড়ে ৬ শতাংশ ভ‚মি ৪২ লাখ টাকায় কেনার রফা-দফা করা হয়। এজন্য দুই ধাপে বিক্রেতাকে ২০ লাখ টাকা বায়না করা হয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে বাকী টাকা পরিশোধ শেষে উক্ত সম্পত্তির দলিল রেজিষ্ট্রি করার কথা রয়েছে। কিন্তু এই সম্পত্তির উপর এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা’র নজর রয়েছে আমার জানা ছিলনা। তিনি এই সম্পত্তি কিনতে চান এমন কোনো কথা স্থানীয়দের বা প্রতিবেশিদের কাছে বলেননি বা শোনা যায়নি।

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

The Daily Narsingdir Bani

ব্যবসায়ী আরো বলেন, শনিবার দুপুরে দোকানে লোক পাঠিয়ে আমাকে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে যাওয়ার পর প্রথমেই জ্যোতির্ময় সাহা আমাকে বাপ-মা তুলে গালাগাল করতে থাকেন। এক পর্যায়ে তিনি আমার গালে থাপ্পড় মারার সাথে সাথে ওনার রুমে থাকা জাকির ও শাহিন আমাকে কাঠের লাঠি দিয়ে এলো-পাতারি পেটানো শুরু করে। আমাকে পিটানোর সময় এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা বলতে থাকেন, “তোর এতো বড় সাহস? আমি যে সম্পত্তি কিনার জন্য ঘুরতেছি, তুই সে সম্পত্তি বায়না করার সাহস পাইলি কই?, তোর এতো টাকা আসলো কোথা থেকে?, কোথায় পেলি সেই সাহস? তাদের মারপিটের একপর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। এরপর জ্ঞান ফিরলে দেখি আমি হাসপাতালে ভর্তি।

মোরশেদ এর মামা মোহাম্মদ টিটু মোল্লা জানান, মোরশেদকে জ্যোতির্ময় সাহার বাড়িতে আটকে রেখে মারধর করা হচ্ছে এমন খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে অজ্ঞান অবস্থায় তার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। এ ঘটনাটি পলাশ থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নরসিংদীর পুলিশ সুপারকেও জানিয়েছি।

এ বিষয়ে জানতে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা অপু’র ব্যক্তিগত মুঠোফোনে ফোন করা হলে অপুর খালাত ভাই পরিচয় দিয়ে রনি নামের এক যুবক ফোন রিসিভ করে জানান, উনি ঘুমাচ্ছেন। ওনার সাথে কথা বলতে হলে ২ ঘন্টা পর কল দিন। এরপর কয়েক ঘন্টা একাধিক নাম্বার থেকে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, পলাশ বাজারের এক ব্যবসায়ীকে পিটানোর খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপ‚র্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button