নরসিংদী সদরনরসিংদীর খবরবিনোদনশিক্ষা

মুজিববর্ষ উপলক্ষে নরসিংদী ইনডিপেনডেন্ট কলেজে ‘জয়যাত্রা’ অনুষ্ঠিত

বাণী রিপোর্ট: নরসিংদী জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানের ধারাবাহিকতায় নরসিংদী ইনডিপেনডেন্ট কলেজে অনুষ্ঠিত হয়েছে জয়যাত্রা। “অধিকার, স্বাধিকার স্বাধীনতার জন্য অমলিন মার্চ” সেই লক্ষ্যে সত্য ন্যায় ও নৈতিকতার এ স্লোগানকে সামনে রেখে ৩ মার্চ মঙ্গলবার সদর উপজেলার সাহেপ্রতাবস্থ কলেজ প্রাঙ্গণে দুইটি পর্বে উক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকাল ৮টায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিল শিক্ষার্থী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। নরসিংদী ইনডিপেনডেন্ট কলেজর অধ্যক্ষ ড. মশিউর রহমান মৃধা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনজুর এলাহী।

পারফিউম ফ্যাক্টরি

অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা আরমান মিয়া, বিশিষ্ট সমাজ সেবক আলহাজ্ব ফারুক সরকার, নরসিংদীর বাণী পত্রিকার সম্পাদক ও নরসিংদী সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক মিয়া, নবধারা স্কুলের চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন অনিক, যুবলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম প্রমূখ। আগামী দিনের যোগ্য নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার লক্ষ্যে অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পরে কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

হাতি মার্কা সাবান হাতি মার্কা সাবান

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে একই দিন বিকেল ৫ টায় কলেজ প্রাঙ্গণে নকশিসের আয়োজনে নরসিংদীর বিভিন্ন স্কুল, কলেজ শিক্ষকদের সমন্বয়ে শিক্ষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। নরসিংদী ইনডিপেনডেন্ট কলেজ অধ্যক্ষ ও নকশিস’র সভাপতি ড. মশিউর রহমান মৃধা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ আলী, প্রফেসর গোলাম মোস্তাফা মিয়া, নকশিস’র প্রধান উপদেষ্টা অধ্যক্ষ অহিভূষণ চক্রবর্তী, নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি আলী হোসেন শিশির (সিআইপি), নরসিংদী প্রেসক্লাব সভাপতি মাখন দাস, সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল পারভেজ, সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বক্তাগণ বলেন, জেলাব্যাপী শিক্ষকদের সমন্বয় সাধন ও স্বার্থ সংরক্ষণসহ শিক্ষাক্ষেত্রে নরসিংদী জেলাকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে গঠিত হয়েছিল নকশিস। নকশিস জেলার শিক্ষকদের ঐক্যের প্রতিক। একটি স্বার্থান্বেষী মহল জেলার সুনামধণ্য শিক্ষকদের পণ্য হিসেবে ব্যবহার করতে ও শিক্ষকদের ঐক্য নষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তাদেরকে রুখতে হবে এবং ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচন করতে হবে। বক্তাগণ আগামী দিনে আরো ঐক্যবদ্ধ হয়ে জেলার শিক্ষা ব্যবস্থাকে এগিয়ে নেয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button