অপরাধনরসিংদীর খবরপলাশ

পলাশ উপজেলায় জনশুমারির লোক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Baniবাণী রিপোর্ট: নরসিংদীর পলাশে জনশুমারি ও গৃহশুমারির লোক নিয়োগে  নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ রয়েছে সাধারণ প্রার্থীদের বাদ দিয়ে জনপ্রতিনিধিদের পছন্দের তালিকা অনুযায়ী অধিকাংশ লোক নিয়োগ দিয়েছেন নিয়োগকর্তারা। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের লোকসহ রয়েছে সরকারী চাকরিজীবীও। নিয়ম বহির্ভূত এসব লোক নিয়োগে সাধারণ প্রার্থীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ।
জানা যায়, সরকারী ডাটাবেজ তৈরির লক্ষে ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় জনশুমারি ও গৃহশুমারির তথ্য সংগ্রহের জন্য গণনাকারী ও সুপারভাইজার পদে লোক নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এর মধ্যে গত ১০ জানুয়ারি থেকে পলাশ উপজেলায় গণনাকারী ও সুপারভাইজার পদে নিয়োগ কার্যক্রম শুরু হয়। উপজেলা জুড়ে ১৫০ টি পদে আবেদন করেন ৪ শতাধিক প্রার্থী।
গত ২৬ জানুয়ারি থেকে ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হয় নিয়োগ পরীক্ষা। নিয়ম অনুযায়ী, নিয়োগ পরীক্ষায় পূর্ব অভিজ্ঞতাসহ বেকার শিক্ষিত নারী-পুরুষদের অগ্রাধিকার দেয়ার কথা থাকলেও এখানে হয়েছে এর ব্যতিক্রম। নিয়োগ পরীক্ষার আগেই নিয়োগকর্তারা বিভিন্ন জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে পাওয়া নামের তালিকা অনুযায়ী প্রার্থী বাছাই করেন। এতে করে বাদ পড়ে যায় পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন অনেক সাধারণ প্রার্থী।
পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একাধিক প্রার্থী জানান, তারা ইতোপূর্বে বিভিন্ন শুমারির কাজ করেছেন। এবার তাদের অনেককেই নেয়া হয়নি। নিয়োগকর্তারা গোপনে পছন্দের লোক নিয়ে নেয়ায় তাদের অনেকেই বাদ পড়েছেন।
পলাশ দড়িহাওলা পাড়া গ্রামের বাইজিদ আহাম্মেদ বলেন, নিয়োগকৃত অনেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের লোক। যাদের এসব কাজের সম্পর্কে কোনো অভিজ্ঞতা নেই। এছাড়া যারা নিয়োগ পরীক্ষাও দেয়নি তাদের নামসহ উপজেলার বিভিন্ন সরকারী অফিসে চাকুরিরত অনেকের নামও নিয়োগপ্রাপ্তদের তালিকায় রয়েছে।
তবে পলাশ উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসার মো. শাহজালাল তালুকদার এসব অভিযোগ আংশিক স্বীকার করে বলেন, নিয়োগের ৩০ শতাংশ সুপারিশের মাধ্যমে নেয়া হলেও বাকিগুলো স্বচ্ছতার মাধ্যমেই নেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button