নরসিংদীর খবরঅর্থনীতিনরসিংদী সদর

শিক্ষার্থীদের মাঝে সঞ্চয়ের মনোভাব থাকলে তারা স্বাবলম্বী হবেই -সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্ট :

নরসিংদী জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন বলেছেন, শিক্ষার্থীদের মাঝে সঞ্চয়ের মনোভাব থাকলে তারা একদিন স্বাবলম্বী হবেই। স্কুল ব্যাংকিং দেশে সাড়া জাগিয়েছে। এ ব্যাংকিং এর ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে সঞ্চয়ী মনোভাব গড়ে উঠবে। তাদেরকে উদ্বুদ্ধকরণে শিক্ষক ও অভিবাবকদের এগিয়ে আসতে হবে। ২২ জানুয়ারি ব্যাংকার্স ফোরাম নরসিংদীর আয়োজনে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, আমিও ছাত্র জীবনে মাটির ব্যাংক ও দুধের ডিব্বায় বৃত্তির টাকা জমিয়ে রেখেছি। সঞ্চয় করতে মা আমাকে উৎসাহিত করেছে। তিনি শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধকরণের জন্য শিক্ষক অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান।
জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে এ উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বেসিক ব্যাংক লিমিটেড নরসিংদীর উপব্যবস্থাপক মোঃ আবদুস সাত্তার খান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বেসিক ব্যাংক লিঃ প্রধান কার্যালয়ের মহা ব্যবস্থাপক মাসুদুর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আবুল হাসেম, বেসিক ব্যাংকের উপব্যবস্থাপক নিয়াজ মোসাব্বির শাহ, সহকারী জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ ইসমাইল হোসেন।
বক্তব্য রাখেন ইসলামী ব্যাংকের ম্যানেজার মোঃ মুহিব উল্লাহ, আইএফআইসি ব্যাংকের ম্যানেজার রঞ্জিত কুমার পাল, জনতা ব্যাংকের ম্যানেজার শাহ আলম মিয়া, সাউথ বাংলা এগ্রি ব্যাংকের ম্যানেজার কাউসার আলম প্রমুখ।
আলোচনা সভার পূ‌র্বে নরসিংদী সার্কিট হাউজ থেকে একটি বর্ণিল শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রায় লীড ব্যাংক বেসিক ব্যাংক লিমিটেউসহ নরসিংদীর সকল তফসিলি ব্যাংক কর্মকর্তা, ২৫ টি স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করেন। পরে জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা শুরু করেন।

উল্লেখ্য, নরসিংদী জেলার ৪০ টি বানিজ্যিক ব্যাংকে গত ডিসেম্বর মাসের হিসেব অনুযায়ী ১৬ হাজার ৭৯২ স্কুল ব্যাংক হিসাব রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক খাতে স্কুল ব্যাংকিং একটি সফল কর্মসূচি। শিক্ষার্থীদের মাঝে সঞ্চয়ী অভ্যাস গড়ে তোলা এবং তাদের অর্থ নৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত করার লক্ষ্যে স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু হয়েছিল তা সারা দেশের ন্যায় নরসিংদীতেও বেশ সাড়া পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button