অপরাধনরসিংদী সদরনরসিংদীর খবর

স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন উদ্ধারসহ ৩ চোরকে গ্রেপ্তার করেছে নরসিংদী মডেল থানা পুলিশ

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

বাণী রিপোর্ট :
চোর চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তারসহ চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার করেছে নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে ৩ লক্ষ টাকা মূল্যমানের ৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।
৯ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার দুপুরে নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দুজ্জামান এ তথ্য জানান।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো বানিয়াছল এলাকার সোলেমান মিয়ার ছেলে আল আমিন @ চোর আলামিন (২০), আবুল কাশেম মিয়ার ছেলে মামুন@ মায়া মামুন (২৮), মৃত তাজুল ইসলাম এর ছেলে সবুজ মিয়া (২৫)।
পুলিশ জানিয়েছে, গত সোমবার রাতে নরসিংদী শহরের পশ্চিমকান্দা পাড়া মহল্লার দীলীপ সাহার বাড়ির ভাড়াটিয়া স্বর্ণকার প্রনব রায়ের বাসায় দুধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে। চোর চক্র জানালার গ্রীল কেটে বাসার ভেতরে প্রবেশ করে। পরে ঘরের আলমিরা ভেঙ্গে নগদ টাকা,স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন সহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। খবর পেয়ে সদর মডেল থানার ওসি তদন্ত আতাউর রহমান সহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরির্দন করেন। এঘটনায় ওই দিন রাতেই ক্ষতিগ্রস্ত গৃহকর্তা প্রনব রায় বাদি হয়ে অজ্ঞাত নামা আসামী করে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর ওসি সৈয়দুজ্জামান, ওসি (তদন্ত) আতাউর রহমান ও ওসি (অপারেশন) তোফাজ্জল হোসেন ও এস আই মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে তদন্তে নামে পুলিশ। বুধবার (৮ জানুয়ারী) রাতে বানিয়াছল এলাকা থেকে মামুন নামে একজনকে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্য মতে আলামিন ও সবুজকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিত্বে চোরাইকৃত ০২টি মোবাইল সেট, ০১ জোড়া স্বর্ণের বালা, ০১টি স্বর্ণের হাড়, ০১টি স্বর্ণের টিকলী ও ০৩টি স্বর্ণে কানের দুল উদ্ধার করা হয়। আরো মালামাল উদ্ধারের জন্য অভিযান অব্যহত আছে।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, অপরাধ করে পার পাওয়ার কোন সুযোগ নেই। চুরি মামলা রজুর ২৪ ঘন্টার মধ্যে তিন চোর সহ স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। ওসি আরো বলেন জেলার আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার স্যারের নির্দেশে জেলা ব্যাপি শুদ্ধি অভিযান চলছে। ইতিমধ্যেই সকল ধরনের অপরাধ সহনিয় পর্যায়ে চলে আসছে।

উল্লেখ্য চুরির মামলা দায়েরের পর ২৪ ঘন্টার মধ্যে অজ্ঞাত আসামীদের পুলিশ গ্রেপ্তার করে মালামাল উদ্ধার করতে পারলেও গত ১ ডিসেম্বর প্রকাশ্য দিবালোকে নরসিংদী মহিলা কলেজের সামনে থেকে ছিনতাইকৃত অটো উদ্ধার করতে পারেনি নরসিংদী মডেল থানা পুলিশ। চিহ্নিত ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের পরও থানায় মামলা হয়নি। ছিনতাইকারীদের একজনকে হাজীপুর এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা সত্বেও তার বিরুদ্ধে অটো ছিনতাইয়ের মামলা হয়নি। জেলা শিল্পকলা একাডেমির একটি চুরির মামলা পুলিশ তাকে আদালতে প্রেরণ করে। ১মাস ১০দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ অটো ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তার ও ছিনতাইকৃত অটো উদ্ধার করতে পারেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button