অপরাধনরসিংদী সদরনরসিংদীর খবর

নরসিংদীর বাণী পত্রিকার সম্পাদককে প্রাণনাশের হুমকী

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

উপরের ছবিটি হুমকীদাতা দীপক সাহার

বাণী রিপোর্ট : পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করায় নরসিংদীর বাণী পত্রিকার সম্পাদক ও নরসিংদী সংবাদপত্র পরিষদেও সাধারণ সম্পাদককে প্রাণ নাশের হুমকী দিয়েছে দীপক সাহা নামের এক ব্যক্তি। এ ব্যপারে নরসিংদী সদর মডেল থানায় সাধারন ডাইরী করা হয়েছে। জিডি নং-৯৫, তাং-০২-০১-২০২০ খ্রি:।
গত ১জানুয়ারী নরসিংদীর বাণী পত্রিকায় “নরসিংদী জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের অকার্যকর কমিটির নেতৃত্ব আগলে রেখেছে মামলার আসামীরা” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। ২জানুয়ারী সন্ধায় দীপক সাহা তার ০১৭১৮২২৭৯৫৭ নাম্বার থেকে সম্পাদককে মোবাইলে প্রাণনাশের হুমকীসহ অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। পরবর্তীতে আবারো ফোনে ২দিনের মধ্যে দেখে নেয়ার হুমকী দেয়।
জানাযায় নরসিংদী পূজা উদযাপন পরিষদের কমিটির মেয়াদ উর্ত্তীণ হওয়ায়, হিন্দু সমাজের নেতৃবৃন্দের সাক্ষাৎকারের প্রেক্ষিতে এবং তাদের মন্তব্য উল্লেখ করে একাধিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। হিন্দু সমাজের নেতৃবৃন্দ সংবাদটিকে সাধুবাদ জানিয়েছে।
এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন নরসিংদী প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি ও নরসিংদী টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম এর সভাপতি বাবু বিশ্বজিৎ হুমকীর নিন্দা জানিয়েছেন, নরসিংদী আওয়ামী সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি-এডভোকেট মনিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক এস এম বেলাল। তারা তদন্তপূর্বক হুমকীদাতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন।
হুমকীর প্রেক্ষিতে নরসিংদী হাজীপুর ইউপি’র সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান ও হাজীপুর গোপাল জিউ আখড়ার সহ সভাপতি সূজিত সূত্রধর বলেন, সত্য ঘটনা প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হুমকী দেয়ার তীব্র নিন্দা জানাই। সে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে উগ্রপন্থীদের মত বক্তব্য দিয়ে থাকে। তার বক্তব্যে হিন্দু সমাজের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়। তার পক্ষে হুমকি দেয়া স্বাভাবিক।
সম্প্রতি রায়পুরায় নরসিংদী প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক প্রীতি রঞ্জন সাহার উপর হামলা ও রায়পুরা প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ফরিদ মিয়ার বাড়ীঘরে হামলার রেষ কাটতে না কাটতেই এবার নরসিংদী প্রেস ক্লাবের সাবেক কোষাধ্যক্ষ, নরসিংদী সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক,ও নরসিংদীর বাণী পত্রিকার সম্পাদক ফারুক মিয়াকে মৃত্যুর হুমকী দিয়েছে।

One Comment

  1. হুমকীর খবর পাওয়া মাত্রই আপনাকে ফোন দিয়েছিলাম। ফোন রিসিভ হয়নি, তাই কথা বলতে পারিনি। আমার ফোনটা দয়া করে রিসিভ করলে কৃতার্থ হই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button