নরসিংদী সদরনরসিংদীর খবরবিনোদন

পাঁচদোনা স্যার কে, জি গুপ্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০০ বছর পূর্তি উৎসব

শেয়ার করুনঃ

The Daily Narsingdir Bani

প্রধান অতিথি সাংসদ ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খাঁন দিলীপ

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুই দিনব্যাপী বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে ১০০ বছর পূর্তি উৎসব পালন করেছে নরসিংদীর পাঁচদোনা স্যার কে, জি গুপ্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রছাত্রীবৃন্দ। ২২ ও ২৩ ডিসেম্বর এ দু’দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, পায়রা উড়ানো ও একশটি বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন, নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জাকির হাসান।
অনুষ্ঠানের প্রথমদিনে সাবেক ছাত্র ছাত্রীরা তাদের বক্তব্যে অনুভুতি ব্যক্ত করেন। শতবর্ষ অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠান শুরু হয় বিকেল ৩ টায়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী ২ (পলাশ) আসনের সাংসদ ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খাঁন দিলীপ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আঃ মতিন ভূইয়া, পলাশ উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ জাবেদ হোসেন, মাধবদী পৌর মেয়র মোশারফ হোসেন মানিক, ঘোড়াশাল পৌর মেয়র শরীফুল হক, স্যার কে,জি গুপ্ত পরিবার পক্ষ থেকে ভারত থেকে আগত স্যার কৃঞ্চ গোবিন্দ গুপ্ত (স্যার কে.জি) গুপ্ত পরিবারের পক্ষ থেকে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন অমিত কুমার সরকার ও অজিত কুমার সরকারসহ পরিবারের সদস্যবৃন্দ।
দুইদিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত শতবর্ষ পূর্তিতে প্রায় দুই হাজার ছাত্রছাত্রী ও আগত অতিথিদের উপস্থিতিতে বিদ্যালয় চত্বরে শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী মুক্তিযুদ্ধের খন্ড খন্ড ঘটনার ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। এসময় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০৩০ এর ভাষন দেন বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিক্ষার্থী। ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনী বিদ্যালয়টি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে এলাকার লোকজন বিদ্যালয়টি পূণরায় প্রতিষ্ঠা করে শিক্ষা র্কাযক্রম চালিয়ে যান। শতবর্ষ উপলক্ষ্যে রেজিষ্ট্রিকৃত প্রায় দুই হাজার ছাত্র ছাত্রীর মধ্যে টিশার্ট, ব্যাচ ওয়ারী ক্রেস্ট ও দুপুরের খাবার বিতরণ ও “শতাব্দীর বাতিঘর” নামে একটি ম্যাগাজিন উপহার দেয়া হয়।
এসময় প্রধান অতিথি ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খাঁন দিলীপ বলেন, বর্তমান যুগের সঙ্গে সংগতি রেখে বিশ্বমানের জ্ঞান ও প্রযুক্তিসম্পন্ন শিক্ষায় শিক্ষিত করতে বিদ্যালয়টিকে সব ধরনের সহযোগীতা বর্তমান সরকার করে আসছে। নতুন প্রজন্মকে উন্নত ও আধুনিক করে গড়ে তুলতে আধুনিক কম্পিউটার ল্যাব, বিজ্ঞানাগার সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ অব্যাহত রয়েছে।
তিনি বলেন, ১৯১৯ সালের এইদিনে নরসিংদী সদর উপজেলা পাঁচদোনা গ্রামে বৃটিশ সরকারের শাসনামলে আইসিএস অফিসার স্যার কৃষ্ণ গোবিন্দ গুপ্ত অত্র এলাকার মানুষকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে ৩ একর জমি দানকরে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টি ১৯৮৪ সালে এমপিওভুক্ত হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ২৫ শত। ৪টি একাডেমিক ভবনের মধ্যে একটি তৃতল ভবন আর বাকী তিনটি দ্বিতল ভবন।
শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে এসে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা বলেন, আজ দীর্ঘ বছর পরে এসে স্কুল জীবনের বন্ধুদের সাথে দেখা যেন রোমাঞ্চকর মুহুর্ত। এটা আমাদের জীবনের একটি স্মরণীয় মুহুর্ত হয়ে থাকবে। অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রাত ১২ টায় একশত আতশবাজি ফুটিয়ে শতবর্ষ অনুষ্ঠানের সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button