পারফিউম ফ্যাক্টরী এলকোহল মুক্ত সুগন্ধির দুনিয়ায় পারফিউম ফ্যাক্টরি আপনার জন্য একটি " ব্লাইন্ড বাই" প্লাটফর্ম "পারফিউম ফ্যাক্টরি"।
জাতীয়রাজনীতি

কনকনে শীত উপেক্ষা করে সোহরাওয়ার্দীতে হাজার হাজার নেতাকর্মীদের ঢল

The Daily Narsingdir Bani

বাণী ডেস্ক: ২০ ডিসেম্বর, কনকনে শীত উপেক্ষা করে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনে যোগ দিতে নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে । দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলন বিকাল ৩টায় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে সম্মেলনের মূলপর্ব শুরু হয় দুপুর দেড়টায়। এর আগেই সম্মেলন স্থলে অবস্থান নিয়েছে আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মী।

এবারের সম্মেলনে ১৫ হাজার কাউন্সিলর ডেলিগেটসহ আমন্ত্রিত অতিথিসহ প্রায় ৫০ হাজার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী অংশ নিচ্ছেন। সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশন কাল শনিবার সকাল ১০টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের জাতীয় কাউন্সিলে আওয়ামী লীগের স্লোগান হচ্ছে, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে গড়তে সোনার দেশ, এগিয়ে চলেছি দুর্বার, আমরাই তো বাংলাদেশ’।

এবারের সম্মেলনে প্রায় ৭ হাজার কাউন্সিলর অংশ নেবেন। এ সম্মেলনে কাউন্সিলর, ডেলিগেটসহ ৪৫ হাজার নেতা-কর্মী উপস্থিত থাকবেন। ঢাকার বিভিন্ন প্রবেশমুখে যেমন বিমানবন্দর, বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল, রেলস্টেশনসহ বিভিন্ন স্থানে বিলবোর্ড ও ব্যানারের মাধ্যমে অতিথি ও কাউন্সিলরদের স্বাগত জানানো হবে। সম্মেলনস্থলে নেতা-কর্মীদের প্রবেশের জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পাঁচটি গেট করা হয়েছে। একটি গেট ভিআইপিদের জন্য সংরক্ষিত।

পদ্মানদীর বুকে ৪০টি স্প্যানের ওপর দাঁড়িয়ে থাকা স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিদর্শন রাখা হয়েছে মঞ্চে। পদ্মা সেতুর নিচে জলরাশিতে ভাসছে ছোট বড় নৌকা। একটি ছোট জাহাজও। একপাশে চর ও কাশবন। পদ্মা সেতুর ওপর বিশালাকৃতির দলীয় প্রতীক নৌকা। জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রতিকৃতি ধারণ করেছে নৌকাটি। নৌকাটির মাঝে বড় করে লেখা ২১তম জাতীয় সম্মেলন ২০১৯। মূল মঞ্চটি এমনভাবে স্থাপন করা হয়েছে, দেখলে মনে হবে, যেন পদ্মা নদীর বুকে ভেসে বেড়াচ্ছে বিশাল এক নৌকা।

৮১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির চারটি পদ শূন্য থাকায় মূল মঞ্চে চেয়ার থাকবে ৭৭টি। মঞ্চের সামনে নেতা-কর্মীদের জন্য চেয়ার থাকবে ৩০ হাজার। এ ছাড়া সম্প্রসারিত মঞ্চে ১৫ হাজার চেয়ার দেওয়া হবে। ২৮টি এলইডি পর্দায় দেখানো হবে সম্মেলনের পুরো অনুষ্ঠান। বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক, দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা, শিক্ষক, চিকিৎসক, আইনজীবীসহ অন্যসব পেশার বিশিষ্টজনদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এরই মধ্যে অতিথিদের তালিকা তৈরি করে সম্মেলনের কার্ড পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button